শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী

সানী ইসলাম:

শেরপুরের নকলা উপজেলার একটি কেন্দ্রে জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষায় তিন পরীক্ষার্থীর জন্য ১৫ জন শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারী দায়িত্ব পালন করেছেন।

১২ নভেম্বর রোববার উপজেলার শাহরিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসা কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে।

কেন্দ্র সচিব মো. আজিজুল ইসলাম বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রোববার শারীরিক শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ে পরিক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পুরাতন সিলেবাস অনুযায়ী যারা গত বছর পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি শুধু তারাই আজকের শারীরিক শিক্ষা ও স্বাস্থ্য পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। গত বছর শারীরিক শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ে কোনো পরীক্ষার্থী ফেল না করায় শুধু গত বছর পরীক্ষা না দেওয়া ওই তিন পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা নিতে হচ্ছে।

এই তিন পরীক্ষার্থীর জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজীব কুমার সরকার, কেন্দ্র সচিব মো. আজিজুল ইসলাম ও হল সুপার মো. আব্দুস ছামাদ, কেন্দ্র পরিদর্শক হিসেবে বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা, নিরাপত্তার দায়িত্বে পুলিশ প্রশাসন, ২ জন অফিস সহকারী, অফিসের সহায়ক হিসেবে ২ পিয়ন ও কক্ষ প্রত্যবেক্ষকগণসহ ১৫ জন তাদের নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানিয়েছেন পরীক্ষার কেন্দ্র সচিব।