গুগল

প্রতিদিনই আমরা কোন না কোন ভাবে গুগলের কোন না কোন সার্ভিস ব্যাবহার করে থাকি। কখনো ম্যাপ, কখনো মেইল, কাখনো সার্চ বা অন্য কিছু। এই সার্ভিস ব্যবহারের আগে গুগল আমাদের ব্যাক্তিগত তথ্য ব্যবহারের অনুমতি চায়। এর ফলে গুগল সার্চ রেজাল্ট আরও নিখুঁত ভাবে দেখাতে পারে আমাদের।

কি তথ্য সংগ্রহ করে গুগল-

আমরা আমাদের ফোনের বিভিন্ন তথ্য মাঝে মাঝেই গুগলকে জানাই, কারন ভালো সার্ভিসের জন্য। এছাড়াও যখন আমরা নতুন গুগল অ্যাকাউন্ট খুলি তখন গুগলকে আমাদের নাম, ফোন নম্বর, ক্রেডিট কার্ড নম্বর ইত্যাদি তথ্য দিয়ে থাকি।

যে সব তথ্য আমাদের কাছ থেকে সংগ্রহ করা হয়-

আমরা যখন কোন ইউটিউব ভিডিও দেখি বা কোন বিজ্ঞাপনে ক্লিক করি অথবা কিছু সার্চ করি তখন গুগল আমাদের সেই সব তথ্য সংগ্রহ করে। এছাড়াও আমরা কি ফোন ব্যবহার করছি, সেই ফোনে কি হার্ডওয়্যার আছে বা ফোনের অপারেটিং সিস্টেম কি, কোন নেটওয়ার্ক ব্যবহার করি ফোনে বা সেই ফোনের নম্বর কত সব তথ্য গোপনে সংগ্রহ করে গুগল। এছাড়াও আমরা কোথায় যাচ্ছি, বা ফোনের লোকাল স্টোরেজের তথ্য বা কুকিস-এর মতো তথ্য সংগ্রহ করে থাকে গুগল।

গুগল যেভাবে ব্যবহার করে এই তথ্য-

এই তথ্য গুগল সংগ্রহ করে তাদের সার্ভিস আরও ভালো করার জন্য। এছাড়াও এই তথ্য সংগ্রহ করে গুগল আরও নিখুঁত সার্চ রেজান্ট দেখায় ইউজারকে। এছাড়াও গুগল এই সব তথ্যের একটি রেকর্ড মেনটেইন করে। এছাড়াও কোম্পানি আপনার ইমেল -এ তাদের নতুন প্রোডাক্ট বা সার্ভিস এর তথ্য জানায়।

এছাড়াও কুকিস থেকে পাওয়া তথ্য সামগ্রিক ভাবে ইউজারের অভিজ্ঞতা ভালো করতে কাজে লাগে। এছাড়াও অটোমেটেড সিস্টেমের মাধ্যমে আপনার ঠিক কোন জিনিসে আগ্রহ তা বুঝে নেয় গুগল।

ফাতেমা তুজ জোহুরা