ছাত্রের সঙ্গে যৌনতা

যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমার অঙ্গরাজ্যে এক শিক্ষিকা এবার নিজ ছাত্রের সঙ্গেই যৌন সম্পর্ক গড়ে তুলার চেষ্টা করেছেন। ওই শিক্ষিকা ছাত্রের সঙ্গে ‘ক্যান্ডেল লাইটে যৌনতা’ করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু আচমকা পুলিশ সেখানে উপস্থিত হয়। আটক করা হয় হান্টার ডে নামে ওই শিক্ষিকাকে।

ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ২২ বছরের শিক্ষিকা হান্টার ডে হাই স্কুলের এক ছাত্রকে নগ্ন ছবি ও কিছু অশ্লীল বার্তা পাঠিয়েছে। সেই ছবি এবং বার্তা ছেলেটির মা-বাবা দেখে ফেলেন। এরপরই ওই শিক্ষিকার আসল রূপ সবার সামনে চলে আসে। ওকলাহোমার ইউকুন হাই স্কুলের এই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে প্রযুক্তির সাহায্যে নাবালককে যৌনকর্মে যুক্ত করার অভিযোগ উঠেছে।

ওই ছাত্রের বাবা-মা পুলিশকে জানিয়েছেন, তারা কিছুদিন ধরে সন্দেহ করেন তাদের ছেলে কোনো অবৈধ সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছেন। এরপরই বাবা-মা ছেলেটির মোবাইলে দেখতে পান শিক্ষিকার অশ্লীল ছবি।

পুলিশকে এ বিষয়ে বাবা-মা জানালে ওই ছাত্রের মোবাইল থেকে তদন্তকারীরা একটি দিন নির্ধারণ করে ওই শিক্ষিকাকে আগের মতোই যৌনতা করার আহবান জানায়। শিক্ষিকাও রাজি হয়ে যান। পরিকল্পনা মাফিক সময় মতো পুলিশ ওই শিক্ষিকার ঘরে গেলে দেখতে পান ঘরের লাইট অফ করে চারিদিকে মোমবাতি জ্বালিয়ে শিক্ষিকা ছেলেটির জন্য অপেক্ষা করছে।

পুলিশ তাকে আটক করেছে। পুলিশ জানায়, হান্টার ছেলেটির সঙ্গে যৌন সম্পর্কের কথা ইতোমধ্যে স্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ, পর্নোগ্রাফি এবং নাবালকের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের মামলা রুজু করা হয়েছে।

সূত্র: এনডিটিভি

আশরাফ ইসলাম