চাকরি,ইন্টারভিউ

‘পড়াশোনা করে যে…’ প্রবাদটা সবারই জানা। পিঠে ব্যাগ নিয়ে স্কুল জীবনে পা রাখার শুরু থেকেই এই কথা বুঝিয়ে দেওয়া হয়। স্কুলে ভালো নম্বর পেলেই ভালো কলেজে সুযোগ পাবে। কলেজে ভালো নম্বর পেলেই ভালো চাকরি পাবে। ভালো চাকরি পেলেই…। সবটাই যেন চক্রাকারে ঘুরছে। যেনতেন প্রকারেণ এই চক্রের সঙ্গে ঘুরতে হবে। কিন্তু, সব শেষে চাকরির ইন্টারভিউ-তে গিয়ে কী সাফল্য নির্ধারিত?

অধুনা চাকরির বাজার কিন্তু ঠিক তা বলছে না। বহু ক্ষেত্রেই চাকরিপ্রার্থীদের অভিজ্ঞতা উলটো। বাঁধাধরা স্ট্র্যাটেজি বা ফরমুলায় বাজিমাত আজ মুশকিল। কিন্তু, কেন?

চাকরির ইন্টারভিউতে আপনার ডিগ্রি নিয়ে কেউ আগ্রহী নয়!
দেখা গেছে, একটি সংস্থায় কর্মরতদের মধ্যে একটা বড় অংশের পড়াশোনা অন্য বিষয়ে। আজকের যুগে কলেজ ডিগ্রির দু’টি প্রয়োজনীয়তা। এক. পরিকল্পনামাফিক কোনো বিশেষ ফিল্ডে কাজ করার জন্য। দুই. সরকারি চাকরির মতো কোনো ক্ষেত্রের জন্য যোগ্যতা নির্ণয়ক হিসেবে।

কোন স্কুলে গিয়েছিলেন? ওহ, জেনে লাভ নেই কোনো!
‘আমার স্কুল রাজ্যের সেরা।’ স্কুলজীবনে বন্ধুবান্ধবদের মধ্যে এই কথার দাম মনে আছে? কিন্তু, ইন্টারভিউ টেবিলে আজ কেউ স্কুলের নাম নিয়ে আগ্রহ দেখায় না। শহর বা জেলার সেরা স্কুলের থেকে পাশ করা পড়ুয়ার থেকে সাধারণ স্কুল থেকে পাশ করা বেশি অভিজ্ঞতার প্রার্থীর কদর অনেক বেশি ইন্টারভিউ টেবিলে।

প্রয়োজন অন্য কিছুর…
মার্কশিটে কত নম্বর লেখা আছে, তার থেকে বেশি প্রয়োজন কম্পানির জন্য আপনি কী করতে পারছেন। মানুষ হিসেবে আপনার দক্ষতাই আপনার যোগ্যতা। কাগজের নম্বরের গুরুত্ব সেখানে অনেক কম।

নয়া চাকরির আগেও চাই অভিজ্ঞতা…
কলেজ জীবনে কোনো খবরের কাগজে ইন্টার্ন হিসেবে কাজ। কিংবা কোনো রিটেল সংস্থায় মার্কেটিং-এর অভিজ্ঞতা। চাকরির টেবিলে এই ছোট ছোট অভিজ্ঞতার দাম অনেক বেশি।

ভিড়ের মধ্যে আলাদা…
আপনার যে নম্বর। তার থেকে বেশি নম্বর বা সমান ডিগ্রি অন্য কারোরও থাকতে পারে। তাই নম্বর বা ডিগ্রির তুলনায় না গিয়ে পেশাদারি হওয়া বেশি প্রয়োজন।

ডিগ্রির প্রয়োজনীয়তাও আছে
কোনো পেপারে ফার্স্ট ক্লাস। কিংবা কোনো বিশেষ বিষয়ে ডিগ্রির গুরুত্ব আছে। যখন সেই সংক্রান্ত বিষয়ে আপনাকে কাজ করতে হবে। যেখানে সেখানে ডিগ্রি দেখিয়ে বেড়ালে লাভ হবে না।

অঙ্কের জটিল ফর্মুলা মনে আছে? আর কী?
এটা সত্যি, যে আমরা সব মনে রাখতে পারি না। এবং সেটা সবসময় আমাদের ইচ্ছার উপর নির্ভর করে না।

নিজেকে পরিচয় না করাতে না পারলে…নম্বর বাঁচাতে পারবে না
আপনি নিজে কীরকম, সেটা বোঝানো খুব প্রয়োজন। মাল্টিটাস্কিং কিনা। কারণ সহ প্লাস পয়েন্ট-মাইনাস পয়েন্ট। ইন্টারভিউ-এর ধরনও সম্পূর্ণ পেশাদারি। তাই উত্তরও সেরকমই আশা করা হয়।

ডিগ্রি মানেই চাকরি নয়
না। সেই সুসময় আজ নেই! শুধু রাশভারী ডিগ্রিধারী হয়ে লাভ নেই। তার থেকে বেশি প্রয়োজন আরও বেশি পেশাদারিত্ব।

তবে এর মানে এই নয়, যে কলেজের প্রয়োজনীয়তা নেই। স্কুল-কলেজ জীবনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। যা মানুষ হিসেবে বেড়ে ওঠার এক অতি আবশ্যিক পর্যায়।

কিন্তু, নিজেকে শুধুমাত্র পুঁথিগত শিক্ষায় পারদর্শী না হয়ে পেশাদারি দক্ষতায় জোর দেওয়া বেশি প্রয়োজন।

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা ,চাকরি এবং বিজনেস  নিউজ ,টিপস ও তথ্য নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ  বাংলার জব  এ