ভাই ,বোন, গার্লফ্রেন্ড,বয়ফ্রেন্ড

এই যে ভাই/বোন….
আপনার গার্লফ্রেন্ড/বয়ফ্রেন্ড আছে?
গার্লফ্রেন্ড/বয়ফ্রেন্ডের সাথে রাত জেগে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলেন ..
রিকশা, সি এন জি,পার্ক,রেস্টুরেন্টে উষ্ণ ভালবাসা বিনিময় হয়….
(বিঃদ্রঃ অনেকের ক্ষেত্রে আবাসিক হোটেল কিংবা মা-বাবার অনুপস্থিতিতে নিজের বাসায়।)
তারপর কিছুদিন পর “তোমার সাথে ম্যাচ করছে না”
দোহাই দিয়ে আপনার প্রেমিক/প্রেমিকা আপনাকে ছেড়ে যেতে না চাইলেও
আপনি একচেটিয়া ভাবে “ব্রেক আপ” করেন????
এরপর আরেকটা প্রাণসখা/প্রানসখি জুটিয়ে নেন….
আর ঘটিয়ে চলেন উপরোক্ত ঘটনাবলীর বারংবার পুনরাবৃত্তি !!!!
তাহলেতো মানতেই হবে ছেলে/মেয়ে হিসেবে আপনি যথেষ্ট স্মার্ট !!
তো আপনার ছোটবোন/ভাইয়ের কি অবস্থা ??
তারও নিশ্চয় বয়ফ্রেন্ড/গার্লফ্রেন্ড আছে !!
সেও সারারাত জেগে কথা বলে !!
রিকশা,সি এনজি,পার্ক,রেস্টুরেন্টে উষ্ণ ভালোবাসা বিনিময় করে !!
তারপর একসময় নিজ স্বার্থের কথা ভেবে
একচেটিয়াভাবে ব্রেক আপ করে এবং
আবারো নতুন গার্লফ্রেন্ড/বয়ফ্রেন্ড জুটিয়ে নেয়! ঠিকতো????
এখন বোনেরা তেমন কিছু বলতে না পারলেও
ভাইয়েরা নিশ্চয়ই বলবেন “ওই মুখ সামলাইয়া কথা বল !!
কেউ আমার বোনের দিকে চোখ দিলেও চোখ উপড়ে ফেলবো!!
ছুঁতে গেলে হাত ভেঙ্গে হাতে ধরিয়ে দেব শালা !!!!
অনেকেতো অনেক কিছু করেও ফেলেন….
এটাই সিস্টেম! নষ্ট সিস্টেম!
ছেলেদের বেলায় নিজের
বোনকে ছাড়া সবাইকে গার্লফ্রেন্ড(পড়ুন ভোগ্যপণ্য)মনে হয়!
আর মেয়েরা মনে করেন ছেলেটার সাথে জাস্ট পরিচয় আছে,যোগাযোগ আছে।
অন্য কিছুনা; তাইতো?
অথচ কেউই চায়না তার বোন/ভাইটা এই বিপথে যাক!
নিজের বোন/ভাইয়ের বেলায় বিবেক নিজেকে বাধা দেয়!
কিন্তু নিজের বেলায়??
বিবেক নেশা কইরা মাতাল! এমন ভাব যা করছেন ঠিকই করছেন।
কারন মানুষ নিজের ভুল সহজে ধরতে পারেনা।
যার সাথে প্রেম/অপকর্ম চালিয়েছেন সেও তো কারো বোন বা ভাই!!
যখন ভালো লেগেছে আদর করছেন,কাছে রেখেছেন,
আর এখন ভালো লাগছেনা(পড়ুন স্বার্থ রক্ষা হচ্ছেনা) তাই ব্রেক-আপ করলেন!!!!
আপনি হয়তো ভুলে গেলেন; কিন্তু সে যদি আপনাকে ভুলতে না পারে ??
সে হয়তো চিরদিন একসাথে থাকার জন্যই আপনাকে ভালোবাসে, এবং শুধু আপনাকেই ভালোবাসে।
একজন দেহব্যবসায়ী(নারী/পুরুষ) অর্থের বিনিময়ে লোক বদলায়।
এখানে অর্থটাই তার স্বার্থ।
আপনিও তো এক বা একাধিক স্বার্থের জন্যই লোক পাল্টাচ্ছেন।
আপনিও কি পতিত কিংবা পতিতা হলেন না?
ভাইয়েরা আমার….
কারো মা,বোন,স্ত্রীর দিকে বাজে মন্তব্য, অশালীন দৃষ্টি কিংবা
ভিড়ের মাঝে গায়ে একটু হাত দেওয়ার আনন্দে শিহরিত হওয়ার আগে,
বন্ধুদের আড্ডায় সেই শিহরনের রসালো গল্প বলে
“তুই একটা বস ব্যাটা”
বাহবা নেওয়ার আগে
একটু চিন্তা করেন….
আপনার আদরের বোনটাও স্কুলে যায়, কলেজে যায়!
আপনি ব্যস্ত থাকলে আপনার বউকে কিংবা আপনার মা-বোনকেও
বাজারে যেতে হয়,
মার্কেটে শপিং করতে যেতে হয়!
মূল্যবোধ হারিয়ে অন্যের
কাছে মূল্যবোধ আশা করবেন না ভাই….
ক্ষণিকের আনন্দ পাওয়ার জন্য অন্যকে অসম্মান করার আগে ভাবুন আপনার মা,আপন বোন,বউকেও যদি কেউ ক্ষণিকের আনন্দ পাওয়ার জন্য অসম্মান করে,
শরীরে হাত দেয় ক্যামন লাগবে আপনার?
সবাইকে বলছি ….
কোন মেয়ে বা ছেলের সাথে প্রেম অথবা বাজে কিছু করার আগে একটু চিন্তা করবেন;
ছেলেদের ক্ষেত্রে মেয়েটিকে আপনার ভোগ্যপণ্য হিসেবে ব্যবহার আর
মেয়েদের ক্ষেত্রে ছেলেটার সাথে প্রেম করেও “জাস্ট যোগাযোগ ছিল,তেমন কিছুই হয়নি” বলে ছেলেটাকে ছেড়ে আসায়; মেয়ে বা ছেলের জীবনটাই শেষ হয়ে যেতে পারে!!!!
আর আপনি যে তাকে কষ্ট দিয়ে সুখি হবেন তার নিশ্চয়তা কি ????
তাই কাউকে ভালোবাসার আগে সময় নিয়ে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিন।
যাতে সেই মানুষটার সাথেই সারাজীবন থাকতে পারেন।
আপনারও ভাই-বোন আছে।
আপনি একটা ছেলে/মেয়ের সাথে প্রেম করে স্বার্থের কারণে ছেড়ে এসে তাকে কষ্ট দেয়ার আগে,বদ-দোয়া নেয়ার আগে ভাবুন আপনার ছোট বোন কিংবা ভাইটার সাথেও ভবিষ্যতে এমন হতে পারে!!
কারণ; উপরের দিকে থু থু ছুড়লে সেই থু থু নিজের উপরই পড়ে!!
আর Natural Punishment থেকে কেউ রেহাই পায়না।
ভাল মানুষ সাজতে খুব কম টাকা লাগে।
ছেলেদের একটা টুপি আর আতর! মেয়েদের লাগে একটা বোরখা!
কিন্তু ভাল মানুষ হতে এক টাকাও লাগেনা।
আপনি নিজে ভালো হউন,সম্মান করতে শিখুন….
দেখবেন অন্যরাও ভালো হবে,সম্মান করতে শিখবে….
ভাল থাকুন….ভাল রাখুন….

মোঃ মাজহারুল ইসলাম মিরাজ
এম,এ, দর্শন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।