আইডিয়া, উদ্দ্যোক্তা, ব্যবসায়ী

যে ৩০টি অভ্যাস প্রমান করে আপনার জন্ম উদ্দ্যোক্তা হবার জন্য তা নিয়ে আজকের আলোচনা। আমরা মাঝে মধ্যেই এমন কিছু মানুষ দেখি, যারা কোন ভাবেই চাকরী করতে পছন্দ করেই না, কিছু একটা অন্য রকম করবার ইচ্ছা তার মনের মধ্যে জেঁকে বসে থাকে। কিছু করতে পারুক বা না পারুক, নিজের আত্মবিশ্বাস, নিজের চেষ্টা সব সময়ই থাকে নিজে থেকে কিছু করবার।

অপর দিকে কিছু মানুষ থাকে, যারা কোন ভাবেই কোন ঝুঁকি নিতে চায় না, মাসে একটা নির্ধারিত দিনে বেতন, নিয়ম মেনে খরচ করা, যা আছে তাতেই সন্তুষ্ট থাকাই তাদের কাজ। কিন্তু কেন এমন হয়? কেন দুজন মানুষ দুই রকম হয়? কেন দুজনের আশা দুই রকম? নিচের এই ৫০টা গুনের লিষ্ট যদি আপনার নিজের মধ্যে খুজে পান, তাহলে আপনি বুঝে নিতে পারেন যে উদ্দ্যোক্তা হবার জন্যই আপনার জন্ম হয়েছে, আপনিই পারবেন।

১. স্থীর হয়ে বসতে পারেন নাঃ সব সময় কিছু না কিছু করবার ইচ্ছা, কিছু করে দেখানোর বাসনা মনের মধ্যে থাকে।

২. নতুন নতুন আইডিয়া আসতেই থাকেঃ হোক সে ভালো কিংবা খারাপ, নতুন কিংবা পুরাতন কিছুকে নতুন করে ভাবা, আইডিয়া আপনার মাথার মধ্যে কিলবিল করতে থাকে।

৩. আপনি অন্যের আইডিয়ার ভুল ধরতে পারেনঃ এটা একা একাই তৈরী হয় নিজের মধ্যে, যখন আপনি অনেক কিছু নিয়ে চিন্তা করেন, আপনি জানেন কি করে চিন্তা করতে হয়, তাই জানেন কিসে সমস্যা থাকতে পারে।

৪. আপনি অনুপ্রানিত হন সফল ব্যবসায়ীদের দেখেঃ কোন নায়ক-নায়িকা নয়, কোন সফল খেলোয়াড়ও নয়, আপনি অনুপ্রানিত হন সফল ব্যবসায়ীদের দেখে।

৫. কোন সফল ব্যবসায়ীকে দেখলে খুশি হনঃ হোক কোন সেমিনার, কিংবা চলতি পথে, আপনি সফল কোন উদ্দ্যোক্ত/ব্যবসায়ীকে দেখলে খুশি হন, তার সাথে কথা বলতে মন চায়।

৬. আপনার কি করতে হবে সেটা বলে দেওয়া পছন্দ করেন নাঃ আপনি কাজের নির্দেশ পাবার থেকে দিতে বেশী পছন্দ করেন।

৭. নতুন জিনিষ শিখতে আগ্রহীঃ কিভাবে কি করতে হবে, কিভাবে কি করা যায়, কোথায় গেলে নতুন কিছু শিখতে পারবেন এগুলিতেই বেশী আগ্রহী।

৮. আপনি প্রচুর টাকার স্বপ্ন দেখেনঃ যদিও টাকাই সব কিছু না, কিন্তু আপনি কোনভাবে প্রচুর টাকার স্বপ্ন ছাড়তে পারেন না।

৯. আপনি সহজে হার মানেন নাঃ ঝুঁকি ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করাটাই আপনার কাছে বেশী আন্দের, কোন কিছুতে হার মানতে আপনি নারাজ।

১০. আপনি আপনার অভ্যাসে নিয়মিতঃ আপনি রুটিন করে কাজ করতে পছন্দ করেন, নিয়ম মাফিক চলতেই বেশী স্বাচ্ছ্যন্দ বোধ করেন।

১১. যত সম্ভব নতুন মানুষের সাথে পরিচিত হনঃ আপনি নতুন মানুষে সাথে পরিচিত হতে আগ্রহী, লজ্জা পান না।

১২. বিফলতা থেকে ফিরে আসেনঃ কোন ভাবে হয়ত বড় ধরণের বিফলতা চলে আসলো, কিন্তু কিছুই আপনাকে দমাতে পারে না, আপনি নতুন করে আবার শুরু করতে পারেন।

১৩. নিজের জন্য লক্ষ্য নির্ধারন করেনঃ চলার পথে এক একটি লক্ষ্য নিয়েই আপনি এগিয়ে যেতে পছন্দ করেন।

১৪. আপনি সাহায্য করতে পছন্দ করেনঃ যখনই সময় এবং সুযোগ মেলে, আপনি অন্যের ভালো করতে আগ্রহী হন।

১৫. আপনি মানুষকে অনুপ্রাণিত করতে পথ খুজেনঃ কিভাবে অন্যকে অনুপ্রাণিত করা যায়, তা ভাবেন প্রচুর পরিমানে।

১৬. কাজের সময়সীমা নির্ধারণ করে চলেনঃ আপনার প্রতিটি কাজেই একটি সময়সীমা থাকে, এবং কোন ছাড়ের স্থান সেখানে নেই।

১৭. আপনি গল্প বলতে পছন্দ করেনঃ নিজের অভিজ্ঞতা, নিজের জ্ঞান, নিজের সম্পর্কে মানুষকে বলতে পছন্দ করেন।

১৮. আপনি নিজেকে কাজে জড়ানঃ কোন কাজের সুযোগ থাকলে আপনি সেখানে নিজেকে কিভাবে লাগানো যায় তার চেষ্টায় থাকেন।

১৯. মানুষের মধ্যে সম্ভাবনা দেখেনঃ একটা মানুষ কি অবস্থায় আছে তা বিচার না করে আপনি বিচার করেন তাকে দিয়ে কি করা সম্ভব, এবং আপনি তাকে সেই ভাবে পরিচালিত করতে আগ্রহী।

২০. আপনি বিপদেও ধীরস্থীরঃ প্রচন্ড বিপদেও আপনি খুব স্থীর ভাবে চিন্তা করতে পারেন।

২১. যার সাথে সুযোগ থাকে, তার সাথে থাকতে চেষ্টা করেনঃ কখনওই কোন সুযোগ হাত ছাড়া হতে দিতে চান না।

২২. সময় নষ্ট পছন্দ করেন নাঃ নিজে নিজেই যে কাজে সময় নষ্ট হবে তা করা থেকে বিরত থাকেন।

২৩. আবেগ নয়, যৌক্তিক চিন্তা করেনঃ আপনি আপনার নিজের লজিক পছন্দ করেন, আবেগ নয়।

২৪. মানুষের আবেগ বুঝতে চেষ্টা করেনঃ যৌক্তিক হলেও, মানুষের আবেগের বিষয়ে যথেস্ট সম্মান আপনার আছে।

২৫. অন্যের উপদেশে গ্রহণ করেনঃ অন্য কেউ কোন ভালো কিছু বললে তা আপনি নির্দিধায় মেনে নিয়ে সেই অনুযায়ী নিজেকে পরিবর্তন করেন।

২৬. মাঝে মধ্যেই নতুন প্রোজেক্ট চালু করেনঃ সব সময় মাথায় নতুন নতুন আইডিয়া ঘুরে বলেই মাঝে মধ্যেই তার দু-একটা শুরু করে দেন।

২৭. আপনি নিয়মিত আপগ্রেড হনঃ হোক সে বাড়ি, কিংবা গাড়ি, কিংবা মোবাইল কিংবা টেকনোলজিতে, আপনি নিয়মিত আপগ্রেড হতে পছন্দ করেন।

২৮. আপনি নতুন প্রযুক্তির বিষয়ে পাগলঃ নতুন একটি প্রযুক্তি আসবে, আর আপনি তা জানবেন না এবং চাইবেন না, এমন হয় না।

২৯. নিয়মিত খবর এবং বই পড়েনঃ এটা অভ্যাস হয়ে যাবার কথা।

৩০. কাজের মাঝে সময় ভুলে যানঃ নিজের স্বপ্নের কাজ করবার সময় মাঝে মধ্যেই আপনার সময়ের খেয়াল থাকে না।

সর্বপরি, আপনি সব সময় নিজে নিজে কিছু একটা করতে আগ্রহী, কোন প্রতিকূলতা, কোন প্রতিবন্ধকতা, কোন বাজে কথা কিংবা কোন সমস্যাই আপনার কাছে কিছু না, এগিয়ে যাওয়া, এগিয়ে চলাই আপনার জীবনের পাথেয়।

লিখেছেনঃ মোঃ শফিউল আলম চৌধূরী