বিসিএস,প্রাথমিক বিদ্যালয়, প্রধান শিক্ষক

৩৪ তম বিসিএসের চূড়ান্ত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েও যারা ক্যাডার পাননি তাদের মধ্যে থেকে ৮৯৮ জনকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে সুপারিশ করা হয়েছে। সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সুপারিশ করা প্রার্থীদের মেডিকেল বোর্ড স্বাস্থ্য পরীক্ষায় যোগ্য ঘোষণা করলে এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে প্রাক-নিয়োগ জীবন বৃত্তান্ত যাচাইয়ের পর তাদের চূড়ান্ত নিয়োগ দেওয়া হবে।
৩৪তম বিসিএসের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় মোট ৬ হাজার ৫৮৪ জন উত্তীর্ণ হয়। এরমধ্য থেকে দুই হাজার ১৫৯ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করে কমিশন। এরআগে কয়েক দফায় ৩৪তম বিসিএসে মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের নন-ক্যাডারের বিভিন্ন পদে সুপারিশ করে পিএসসি।
৮৯৮ জন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে সুপারিশ ছাড়াও ৩৪ তম নন ক্যাডার তালিকা থেকে আরো ৫০০ জনকে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে সুপারিশ করা হতে পারে বলে পিএসসি সূত্র নিশ্চিত করেছে।
চূড়ান্ত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েও যারা ক্যাডার পান না, তাদের মধ্য থেকে প্রথম শ্রেণির নন-ক্যাডার পদে নিয়োগ দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয় ৩১তম বিসিএস থেকে। বিসিএসে উত্তীর্ণদের মধ্য থেকে দ্বিতীয় শ্রেণির কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দিতে ২০১৪ সালের ১৬ জুন নন-ক্যাডার পদের নিয়োগ বিধিমালা সংশোধন করে সরকার।
৩৫তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশের আগ পর্যন্ত ৩৪তম বিসিএস থেকে দ্বিতীয় শ্রেণির কর্মকর্তা পদে নিয়োগ অব্যাহত থাকবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।