বিসিএস

৩৫তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল বুধবার প্রকাশ করা হয়েছে। এতে ২ হাজার ১৫৮ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)।
পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক বুধবার বিকেলে চূড়ান্ত ফল প্রকাশের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘আমরা ২ হাজার ১৫৮ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছি। চূড়ান্ত ফল পিএসসির ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।’
পিএসসির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রার্থীদের বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগ দিয়ে আদেশ জারি করা হবে।
পরে পিএসসির ওয়েবসাইটে (www.bpsc.gov.bd) চূড়ান্ত ফল প্রকাশের প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।
এতে বলা হয়, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরও তথ্য বিভ্রাট ও প্রশাসনিক কারণে ১৪ জনের ফলাফল স্থগিত রাখা হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৯৬ জনকে প্রশাসন ক্যাডার, ১১৯ জনকে পুলিশ ক্যাডার, ৩৮৭ জনকে স্বাস্থ্য ক্যাডার ও শিক্ষা ক্যাডারে ৮২০ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে।
গত ৩১ জানুয়ারি থেকে ৩ মার্চ এবং ৬ থেকে ২১ মার্চ ৩৫তম বিসিএসে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা হয়। মৌখিক পরীক্ষায় ৬ হাজার ১৫ জন প্রার্থী অংশ নিয়েছিলেন।
লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় ৫ হাজার ৫৩৩ জন উত্তীর্ণ হয় বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কিন্তু পদ স্বল্পতার কারণে বিসিএস ক্যাডার সার্ভিসে সুপারিশ করা সম্ভব হয়নি এমন ৩ হাজার ৩৫৯ জন প্রার্থীর তালিকাও প্রকাশ করেছে পিএসসি। সরকারের কাছ থেকে শূন্য পদের রিকুইজিশন পাওয়ার প্রাপ্তি সাপেক্ষে এদের মধ্য থেকে নিয়োগের প্রচেষ্টা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে পিএসসি।
এ বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয় গত ১৩ জানুয়ারি। এতে ছয় হাজার ৮৮ জন উত্তীর্ণ হন। গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর ৩৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হয়, শেষ হয় ১০ অক্টোবর পর্যন্ত।
প্রিলিমিনারি পরীক্ষা হয় গত বছরের ৬ মার্চ। বিধিমালা পরিবর্তন করে ৩৫তম বিসিএস থেকেই প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ১০০ নম্বরের পরিবর্তে ২০০ নম্বর ও সময় এক ঘণ্টা থেকে বাড়িয়ে দুই ঘণ্টা করা হয়।
প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশিত হয় ওই বছরের ৮ এপ্রিল। এতে উত্তীর্ণ হন ২০ হাজার ৩৯১ জন। এরমধ্যে ৪১৯ জনের প্রার্থীতা বিভিন্ন কারণে বাতিল করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে কমিশন।
সরকারি চাকরি পেতে ৩৫তম বিসিএসে দুই লাখ ৪৪ হাজার ১০৭ জন প্রার্থী আবেদন করেন। এটাই বিসিএসের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংখ্যক প্রার্থী। ৩৫তম বিসিএসের মাধ্যমে বিভিন্ন ক্যাডারে এক হাজার ৮০৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। বিভিন্ন ক্যাডারে এক হাজার ৮০৩ জনকে নিয়োগ দিতে ২০১৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ৩৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি।